মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

খুলনা মডেল স্কুল এন্ড কলেজ।

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

‘ঢাকা মহানগরীসহ ৬টি বিভাগীয় শহরে ১১টি বেসরকারি উচ্চ মাধ্যমিক মডেল বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্প’ নামে সম্পূর্ণরূপে বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে ১১৪কোটি ৯ লক্ষ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় ধরে একটি প্রকল্প প্রণীত হয় এবং একনেক সভায় প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। এ প্রকল্পের অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগরীর মোহাম্মদপুরে ১টি, মীরপুরের (রূপনগর) ১টি, শ্যমপুরে ১টি, লালবাগে ১টি, রাজশাহীতে ১টি, চট্টগ্রামে ১টি, সিলেট ১টি, বরিশালে ১টি এবং খুলনায় ১টি মিলে মোট ৯টি মডেল কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। খুলনা বিভাগের জন্য বরাদ্ধকৃত খুলনা মডেল স্কুল এন্ড কলেজ খুলনা মহানগরীর শিক্ষাজোন হিসেবে পরিচিত বয়রা এলাকার জলিল সরণির উত্তর পার্শ্বে দু’একর সরকারি খাস জমিতে প্রতিষ্ঠা করা হয়। নির্মাণ কাজ শেষ হলে ২০০৭ সালের জুন মাসের ৯ তারিখ থেকে শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কলেজ কর্তৃপক্ষের নিকট যাবতীয় স্থাপনা হস্তান্তর করে। ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণি এবং ২০০৮ সালে স্কুল শাখার শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়।

২০০৭ সাল।

প্রতিষ্ঠার প্রেক্ষাপটঃ মাধ্যমিক পর্যায়ে পাঠদানের জন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন সিটিতে রয়েছে ৩২৩ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়। এ বিদ্যালয়গুলোর মাঝে ২৪টি সরকারি এবং ২৯৯ টি বেসরকারি। মাধ্যমিক স্তরে উন্নতমানের শিক্ষার সুযোগ প্রদানে ঢাকা সিটিতে বিদ্যমান স্কুলগুলো যথেষ্ট নয় বলে বছরের শুরুতে ভাল স্কুলে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীদের মাঝে ভর্তি যুদ্ধ শুরু হয়। এ জন্য মাধ্যমিক স্তরে মানসম্পন্ন শিক্ষার সুযোগ বৃদ্ধি কল্পে রাজউক উত্তরামডেল কলেজের আদলে ঢাকা মেট্রোপলিটন সিটিতে ১০টি উচ্চ মাধ্যমিক মডেল বিদ্যালয় স্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উক্ত বিদ্যালয়সমূহ স্থাপনের মূল উদ্দেশ্য ছিল শিক্ষা খাতে ক্রমবর্ধমান চাহিদার প্রেক্ষিতে শিক্ষার সুযোগ বৃদ্ধি করা, উন্নত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে শিক্ষা ক্ষেত্রে বিদ্যামান বৈষম্য দূরীকরণ এবং আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষার মনোনন্নয়ন ও সুযোগ বৃদ্ধি করা। পরবর্তীতে শিক্ষা ক্ষেত্রে আঞ্চলিক বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষ্যে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক ৩১/০৭/২০০৩ তারিখে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, কেবল ঢাকা সিটির পরিবর্তে সারা দেশে ১১টি উচ্চ মাধ্যমিক মডেল বিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। উক্ত ১১টি উচ্চ মাধ্যমিক মডেল বিদ্যারয়ের মাঝে ঢাকা মেট্রোপলিটন সিটিতে ৫টি, ঢাকা ব্যতীত আর ৫টি বিভাগীয় সদরে ৫টি এবং বগুড়াতে একটি বিদ্যালয় স্থাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সে প্রেক্ষিতে ‘ঢাকা মহানগরীসহ ৬টি বিভাগীয় শহরে ১১টি বেসরকারি উচ্চ মাধ্যমিক মডেল বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্প’ নামে সম্পূর্ণরূপে বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে ১১৪কোটি ৯ লক্ষ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় ধরে একটি প্রকল্প প্রণীত হয় এবং একনেক সভায় প্রকল্পটি অনুমোদিত হয়। এ প্রকল্পের অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগরীর মোহাম্মদপুরে ১টি, মীরপুরের (রূপনগর) ১টি, শ্যমপুরে ১টি, লালবাগে ১টি, রাজশাহীতে ১টি, চট্টগ্রামে ১টি, সিলেট ১টি, বরিশালে ১টি এবং খুলনায় ১টি মিলে মোট ৯টি মডেল কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। খুলনা বিভাগের জন্য বরাদ্ধকৃত খুলনা মডেল স্কুল এন্ড কলেজ খুলনা মহানগরীর শিক্ষাজোন হিসেবে পরিচিত বয়রা এলাকার জলিল সরণির উত্তর পাশের্ব দু’একক সরকারি খাস জমিতে প্রতিষ্ঠা করা হয়। নির্মাণ কাজ শেষ হলে ২০০৭ সালের জুন মাসের ৯ তারিখ থেকে শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কলেজ কর্তৃপক্ষের নিকট যাবতীয় স্থাপনা হস্তান্তর করে। ২০০৭-০৮ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণি এবং ২০০৮ সালে স্কুল শাখার শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
জনাব শেখ হারুনর রশীদ 0 kmsc_2007@yahoo.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

মোট ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা

৮৬৩ জন।

ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণী ভিত্তিক)

তৃতীয় শ্রেণি-৬২ জন, চতুর্থ শ্রেণি-১৭ জন, পঞ্চম শ্রেণি-১৪জন, ৬ষ্ঠ শ্রেণি-৬৮ জন, ৭ম শ্রেণি-৬৮, ৮ম শ্রেণি-৬০ জন, ৯ম শ্রেণি (বিজ্ঞান)-৩৪, ৯ম শ্রেণি (ব্যবসায় শিক্ষা)-২১, ৯ম শ্রেণি (মানবিক)-০৭, ১০ম শ্রেণি (বিজ্ঞান)-৫১, ১০ম শ্রেণি (ব্যবসায় শিক্ষা)-৪৯,  ১০ম শ্রেণি (মানবিক)-০৮, একাদশ শ্রেণি (বিজ্ঞান)-১১২, একাদশ শ্রেণি (ব্যবসায় শিক্ষা)-৭০, একাদশ শ্রেণি (মানবিক)-৩০, দ্বাদশ শ্রেণি (বিজ্ঞান)-৯৬, দ্বাদশ শ্রেণি (ব্যবসায় শিক্ষা)-৭৪, দ্বাদশ শ্রেণি (মানবিক)-২২ জন।

জে এস সি ২০১০ সালে ৯০%। জে এস সি ২০১১ সালে ৯৯%। এস এস সি ২০১০ সালে ৯৫%। এস এস সি ২০১১ সালে ৯৫%। এইচ এস সি ২০০৯ সালে ৮৪%। এইচ এস সি ২০১০ সালে ৭৭%। এইচ এস সি ২০১১ সালে ৭৭%।

বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য

ক্রঃ নং

বোর্ড অব গভর্নরস-এ পদবী

মূল পদবী

 

০১

সভাপতি (পদাধিকার বলে)

বিভাগীয় কমিশনার, খুলনা। 

বিগত ৫ বছরের সমাপনী

শ্রেণি

সাল

মোট শিক্ষার্থী

 

৬ষ্ঠ শ্রেণি

২০০৮

১১২ জন

২০০৯

৫৩ জন

২০১০

৪৩ জন

২০১১

৬৫ জন

৭ম শ্রেণি

২০০৮

৫৭ জন

২০০৯

১১৭ জন

২০১০

৬৮ জন

২০১১

৫০ জন

৮ম শ্রেণি

২০০৮

৬৫ জন

২০০৯

৮৫ জন

২০১০

১১০ জন

২০১১

৬৬ জন

৯ম শ্রেণি (বিজ্ঞান)

২০০৮

৫১ জন

২০০৯

৪৬ জন

২০১০

৪৬ জন

২০১১

৫১ জন

৯ম শ্রেণি (ব্যবসায় শিক্ষা)

২০০৮

৪২ জন

২০০৯

৪৮ জন

২০১০

৩৬ জন

২০১১

৪৯ জন

৯ম শ্রেণি (মানবিক)

২০০৮

০২ জন

২০১০

০৮ জন

২০১১

০৭ জন

১০ম শ্রেণি

২০১০

৬৯ জন

২০১১

৮৮ জন

 

পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল

পরীক্ষার নাম

সাল

প্রাপ্ত গ্রেড

সংখ্যা

 

জেএসসি

২০১০

A+

৪ জন

A

৩৩ জন

A-

১৮ জন

B

২৬ জন

C

১৬ জন

D

০১ জন

F

১২ জন

 মোট=

১১০ জন

জেএসসি

২০১১

A+

৪ জন

A

২০ জন

A-

১১ জন

B

১৬ জন

C

১২ জন

D

০২ জন

F

০১ জন

 মোট=

৬৬ জন

এস এস সি

২০১০

A+

০৮ জন

A

৩৩ জন

A-

১৬ জন

B

০৮ জন

F

০৪ জন

 মোট=

৬৯ জন

এস এস সি

২০১১

A+

১৩ জন

A

৪২ জন

A-

১০ জন

B

১৩ জন

C

০৫ জন

F

০৫ জন

 মোট=

৮৮ জন

এইচ এস সি

২০০৯

A+

০৩ জন

A

৬১ জন

A-

৩৭ জন

B

২৯ জন

C

৩০ জন

D

০১ জন

F

৩২ জন

 মোট=

১৯৩ জন

এইচ এস সি

২০১০

A+

০৩ জন

A

৪০ জন

A-

৫৬ জন

B

৫২ জন

C

২৮ জন

D

০১ জন

F

৫৪ জন

 মোট=

২৩৪ জন

এইচ এস সি

২০১১

A+

০৯ জন

A

৪৭ জন

A-

৪৩ জন

B

৩২ জন

C

১৫ জন

F

৪৬ জন

 মোট=

১৯২ জন

পিএসসি, জেএসসি, এসএসসি ও এইচ এস সি পরীক্ষায় বৃত্তি প্রাপ্ত ও এ+ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বেতন মওকুফ।

জেএসসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় প্রায় শত ভাগ পাশের হার অর্জন।

আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সম্পন্ন উন্নত মানের শিক্ষাদান পদ্ধতি প্রয়োগের মাধ্যমে দক্ষ মানবশক্তি তৈরী করা।